ফেনীতে কাজিরবাগ ইকোপার্কের শুভ উদ্বোধন

sm24.tv নিউজ ডেস্ক : দীর্ঘ দিনের জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ফেনীর কাজিরবাগ ইকোপার্কের শুভ উদ্বোধন হল মঙ্গলবার সকাল ১১.০০ টায়।

ইদুল আজহার পরের দিনই ফেনীবাসীর জন্য আরেক সুখবার্তা নিয়ে হাজির হল কাজিরবাগ ইকোপার্ক।দৃষ্টি নন্দন এই ইকোপার্কে নানান রকমের গাছ গাছালি,পাখ পাখালি ও মনোরম ফুলের বাগানের স্বমন্বয়ে নান্দনিকভাবে গড়ে উঠা এই পার্ক, এরই মধ্যে নজর কেডেছে ফেনীবাসীর।
এই উৎসব মুখরিত পরিবেশের মধ্যে দিয়ে ফেনীবাসীর মাঝে এই ঈদে বিনোদনের মাত্রা এক ধাপ বাড়িয়ে আরো উৎসাহিত করে দিল।

আজ ১৩ই আগষ্ট মঙ্গলবার সকাল ১১.০০ টা থেকে শুরু হয় এর আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন।
উক্ত উদ্বোধনি অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতি ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সচিব জনাব কামাল উদ্দিন আহমেদ, বিশেষ অথিতি ফেনী-২ আসনের এম পি নিজাম উদ্দিন হাজারী, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান বি,কম,স্বাগত বক্তব্য রাখেন সামাজিক বন বিভাগের নির্বাহী কর্মকর্তা এস, এম কায়সার এছাডা আরো উপস্থিত ছিলেন জ্বালানী মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব পারভিন আক্তার, নিজাম উদ্দিন হাজারীর সহধর্মিণী নুরজাহান বেগম নাসরিন, সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জোসনা আরা জুসি,বনবিভাগের সদর রেঞ্জ কর্মকর্তা তপন দেব নাথ, কাজীরবাগ ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট বুল বুল আহমেদ সোহাগ,আনন্দ পুর ইউপি চেয়ারম্যান হারুন মজুমদার, পৌর কাউন্সিলর বাহার উদ্দিন বাহার ও ফেনী জেলার নানান নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রসাশক মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান।

উক্ত অনুষ্ঠান উদ্বোধনকালে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলেন যে এই ইকোপার্ক ফেনীর মানুষের দীর্ঘ প্রতিক্ষার ফল এই পার্কে চিত্তোবিনোদনের পাশাপাশি উপকূলীয় এই জেলার জলবায়ু পরিবার সহনীয় পরিবেশ সৃষ্টি বিরল ও বিলুপ্ত প্রায় জিনপুল সংরক্ষণ, বন্যা প্রানীর আবাসস্থল ও প্রজনন ক্ষেএ উন্নয়ন, সরকারের রাজস্ব আয় বৃদ্ধি এবং স্থানীয় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থান ও আর্থ সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

দৃষ্ঠিনন্দিত এই ইকোপার্কে রয়েছে বিরল নাগেশ্বর, কালিমেন্দা, যজ্ঞ ডুমুর, হরতকি, হরিণা, আগর, অর্জুন, নাগলিঙ্গম, রক্ত চন্দন, রাধা চূড়া, মহুয়া, হিজল, লটকন, কদবেল, লং, করমচা, বেলম্বু ও দারুচিনিসহ বিরল ও বিলুপ্তপ্রায় ১৭২ প্রজাতির বনজ, ফলজ ও ভেষজ বৃক্ষ। রয়েছে হরিণ, বানর, খরগোশ, ময়ুর, টিয়া, তোতা, সানকোনিয়র, ব্লু- এন্ড গোল্ড মেকাউ, স্কারনেট মেকাউ, আফ্রিকার গ্রে প্যারোট পাখি এবং বিলুপ্ত ও বিপন্ন প্রজাতির সংরক্ষণের জন্য মিনি বোটানিক্যাল গার্ডেন, সুন্দরবনের গেওয়া ও গরানসহ ম্যানগ্রোভ প্রজাতির মডেল বনায়ন। এছাড়া চিত্তবিনোদনের জন্য রয়েছে শোভাবর্ধক নানা বৃক্ষরাজি ও মনোরম ফুলের বাগান, নয়নাভিরাম পানির ফোয়ারা, শিশু-কিশোরদের খেলাধুলার জন্য বিভিন্ন রাইডার। ট্রেন, প্যাডেল বোট ও নাগরদোলাসহ আরো কয়েকটি রাইড বসানোর চলছে প্রক্রিয়া।
পুকুরে রয়েছে একুরিয়ামজাত বাহারি নানা রঙ্গের মাছ ও জলজ উদ্ভিদ।এছাড়া পর্যটক এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষা সফর ও বনভোজনে আসা লোকজনের থাকা-খাওয়ার জন্যও এখানে রয়েছে সুব্যবস্থা। চারদিকের দৃশ্য অবলোকনের জন্য রয়েছে একটি ওয়াচ-টাওয়ার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *