চট্টগ্রামের বিভিন্ন সেক্টরে সৌন্দর্য বর্ধনের ক্ষেত্রে মানুষের নৈতিক চরিত্র গঠনের ক্ষেত্রে অনেক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে-প্যানেল মেয়র

চট্টগ্রাম:বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে লালদীঘি মাঠে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, যৌতুক ও দুর্নীতি প্রতিরোধ মহাসমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে
১০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ড.নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু বলেন,চট্টগ্রামের বিভিন্ন সেক্টরে সৌন্দর্য বর্ধনের ক্ষেত্রে মানুষের নৈতিক চরিত্র গঠনের ক্ষেত্রে অনেক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে।তিনি তার বক্তব্যে আরো বলেন,মেয়র নাছিরের মধ্যে চট্টগ্রামের প্রতি ভালোবাসা ও অন্যায়ের প্রতিবাদের সাহস দেখেছি। তিনি মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, যৌতুক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে এ মহাসমাবেশের ডাক দিয়েছেন।
চট্টগ্রাম যাতে পিছিয়ে না যায়,চট্টগ্রাম যাতে অগ্রনী ভুমিকায় বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যেতে পারে তার জন্য এই চার পাঁচ সময় একটা নেতার জন্য কিছু নয়।তিনি আগামী পাচঁ বছর মেয়র আ.জ. ম নাছির উদ্দিনের নেতৃত্বে চট্টগ্রামের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সবার দোয়া ও সমর্থন কামনা করেন।

এতে প্রধান অতিথি উপস্থিত ছিলেন,
সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ‘জনগণের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে আমরা চট্টগ্রাম নগরীর ৪১ ওয়ার্ডে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতি ও যৌতুকের বিরুদ্ধে সমাবেশ করেছি। এরপর আজ লালদিঘী ময়দানে এই সমাবেশের আয়োজন করেছি। এই সমাবেশের মূল লক্ষ্য হচ্ছে, আমরা নগরবাসী শপথবাক্য পাঠ করছি। আমরা শপথ করছি, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, দুর্নীতি, মাদক, যৌতুক থেকে আমরা নিজেদের রক্ষা করব। আমাদের পরিবার, সমাজকে রক্ষা করব। এই নগরকে আমরা মাদক, সন্ত্রাস, দুনীতি, জঙ্গিবাদ এবং যৌতুকমুক্ত রাখব।তিনি আরো বলেন,আমাদের প্রত্যাশিত ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ বির্নিমাণে প্রধান অন্তরায়। এই অন্তরায় সমূহকে দূর করে নিরাপদ বাসযোগ্য চট্টগ্রাম ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বির্নিমাণে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ হলাম।বক্তব্য শেষে মেয়র নিজে শপথবাক্য পাঠ করান।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জামাল উদ্দিন আহমেদ এবং চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আমেনা বেগম।
অনুষ্ঠানে আমেনা বেগম বলেন,আপনি কারও মা, কারও ভাই। আপনারা জানেন—আপনাদের সন্তান-ভাই কী করছে। সন্তান কোথায় যায়, কার সঙ্গে মিশে। সে খারাপ লোকের পাল্লায় পড়লো কিনা। এগুলো দেখার দায়িত্ব আপনাদের। সবাই যদি সচেতন থাকেন, তবে মাদক চট্টগ্রাম শহরে থাকবে না।’
সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর মোবারক আলী, মোরশেদ আখতার, এফ কবির আহমেদ মানিক, গোলাম মোহাম্মদ চৌধুরী, জহর লাল হাজারী, হাসান মুরাদ বিপ্লব, গিয়াস উদ্দিন,সাইয়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু ও সলিমুল্লাহ বাচ্চু প্রমুখ।
এছাড়াও কাউন্সিলর শাহেদ ইকবাল বাবু, তৌফিক আহমেদ চৌধুরী, আবদুল কাদের ওরফে মাছ কাদের, মোহাম্মদ হোসেন হিরণ, জিয়াউল হক সুমন ও গোলাম মোহাম্মদ জোবায়ের উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *